যেসব অজানা গুণ থাকতে হয় বিমানবালাদের

December 5, 2018 11:00 am
Print Friendly, PDF & Email

বিশ্বের বেশিরভাগ এয়ারলাইনসের কেবিন ক্রু সদস্যদের মধ্যে মেয়েদের সংখ্যা থাকে বেশি। যাত্রীদের খাবার পরিবেশন ছাড়াও তাদের নির্দিষ্ট আসন খুঁজে পেতে সহায়তা করা, ওভারহেডে মালপত্র ওঠানামায় সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেওয়া, যাত্রীদের কেউ অসুস্থ হলে প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা প্রদান করার মতো অনেক দায়িত্ব পালন করেন তারা। সব মিলিয়ে ফ্লাইটের অভ্যন্তরে বিমান উড্ডয়ন ও অবতরণের সময় যাত্রীদের নিরাপদে রাখার সর্বোচ্চ চেষ্টা থাকে তাদের।

বিমানবালা পেশায় যুক্ত হতে চাইলে বেশকিছু নিয়ম মেনে চলতে হয় মেয়েদের। একইসঙ্গে থাকা চাই অদ্ভুত কিছু গুণ! এর মধ্যে রয়েছে সাঁতারে দক্ষতা থেকে শুরু করে জঙ্গলে বেঁচে থাকার প্রশিক্ষণের অভিজ্ঞতা।

* কোনও কারণে বিমান যদি পানিতে অবতরণ করতে হয় সেজন্য বিমানবালাদের কমপক্ষে ২০ মিটার সাঁতার কাটার সক্ষমতা থাকতে হয়।
* বিমানবালাকে অবশ্যই শক্তিশালী হতে হবে। কারণ অনেক ক্ষেত্রে যাত্রীদের আসনের ওপরে ওভারহেড অংশে লাগেজ ওঠানামা করতে হয় তাদের। এয়ার নিউজিল্যান্ডের কেবিন ক্রু সদস্যদের ১০ কিলোগ্রাম পর্যন্ত উত্তোলনের সক্ষমতা ও ১৭০ সেন্টিমিটার (৫ ফুট ৫ ইঞ্চি) উচ্চতা থাকতে হয়।

* বিমানবালার শরীরে দৃশ্যমান কোনও ট্যাটু (উল্কি) কিংবা পিয়ার্সিং থাকা যাবে না। কানে ছোট আকারের দুল থাকতে পারে।

* বিমানবালাদের মাথার চুল অবশ্যই কাঁধের ওপর পর্যন্ত ছোট রাখা আবশ্যক। চুল লম্বা হলেও সেভাবে সাজিয়ে রাখতে হবে। আর চুলের রঙ হতে হবে স্বাভাবিক।

* জঙ্গলে বেঁচে থাকার দক্ষতা থাকতে হবে। ব্রাজিলিয়ান বিমান সংস্থা টিএএম এয়ারলাইনসের বিমানবালা হওয়ার অন্যতম শর্ত এটাই।

* বেশিরভাগ ক্ষেত্রে বিমানবালা হওয়ার অন্যতম শর্ত অবিবাহিত থাকা। জেট এয়ারওয়েজ তাদের নতুন অনভিজ্ঞ বিমানবালা পদে বিবাহিতা কাউকে নিয়োগ দেয় না।

* প্রত্যেক বিমানবালার হাত ও পায়ের নখ ছোট রাখা বাধ্যতামূলক।

* বিমানবালাদের কুংফু জ্ঞানকে অগ্রাধিকার দিয়ে থাকে হংকং এয়ারলাইনস।

* বিমানবালা হওয়ার জন্য ১৫০ সেন্টিমিটার (৪ ফুট ৯ ইঞ্চি) থেকে ১৯০ সেন্টিমিটারের (৬ ফুট ২ ইঞ্চি) মধ্যে উচ্চতা থাকতে হবে।

* আমেরিকার এয়ারলাইনসের বিমানবালা হওয়ার শর্ত হলো কান, নাক ও বগলের দৃশ্যমান চুল ছেটে ফেলতে হবে।

* চায়না সাউদার্ন এয়ারলাইনস কর্তৃপক্ষের মতে, বিমানবালাদের সুন্দর পা থাকা চাই।
সূত্র: সানডে এক্সপ্রেস