হৃদপিণ্ড নিতে ফিরে এলো যাত্রীবাহী বিমান

December 15, 2018 1:58 pm
Print Friendly, PDF & Email

যুক্তরাষ্ট্রে হৃদপিণ্ড নিতে ফিরে এলো যাত্রীবাহী বিমান

যুক্তরাষ্ট্রে সিয়াটল থেকে ডালাসগামী একটি যাত্রীবাহী বিমান উড্ডয়নের কয়েক ঘণ্টা পর সিয়াটল ফিরতে বাধ্য হয়েছে। বিমানটির পরিবহন সংস্থা সাউথওয়েস্ট এয়ারলাইন্স জানিয়েছে, তারা একটি হার্ট বা হৃদপিণ্ড নিতে ভুলে যাওয়ায় বিমানটি আবারও সিয়াটল ফিরে এসেছে। খবর বিবিসির।

বিমান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ওই মানব অঙ্গটি ক্যালিফোর্নিয়া থেকে সিয়াটল নিয়ে আসা হয়। সেখানকার একটি হাসপাতালে রেখে হৃদপিণ্ডটির একটি ভাল্বটি স্বাভাবিক অবস্থায় আনার কথা ছিল।

কিন্তু ওই হৃদপিণ্ডটি বিমান থেকে নামানোই হয়নি। তবে বিমানটি ডালাসের উদ্দেশে অর্ধেকের বেশি পথ পাড়ি দেয়ার পর বিমানের স্টাফদের ওই বিষয়টি নজরে আসে।

যদিও ওই হৃদপিণ্ডটি কোনও নির্দিষ্ট রোগীর জন্য তাৎক্ষণিক প্রয়োজন ছিল না।

খবরে বলা হয়েছে, রোববার এই ঘটনা ঘটেছে। তবে বৃহস্পতিবার এ ঘটনা সামনে আসে।

বিমানের ক্যাপ্টেন যখন মাঝ আকাশে হঠাৎ করে বিমান ঘুরানোর কথা বলেন, তখন নাকি যাত্রীরা বেশ অবাক হয়েছিলেন।

তবে বিমানের ক্যাপ্টেনের ওই ঘোষণার পর অনেক যাত্রী তাদের স্মার্টফোন দিয়ে জানার চেষ্টা করেন যে, একটি হৃদপিণ্ড প্রতিস্থাপন অপারেশনের আগ পর্যন্ত কতক্ষণ সংরক্ষণ করা যায়। বিশেষজ্ঞদের মতে,  সাধারণত ৪ থেকে ৬ ঘণ্টার মধ্যে এই অস্ত্রোপচার সম্পন্ন করতে হয়।

বিমানটি প্রায় তিন ঘণ্টা ধরে আকাশে ছিল বলে খবরে বলা হয়েছে। ওই বিমানে যাত্রী হিসেবে থাকা একজন ডাক্তার সিয়াটল টাইমসকে বলেছেন, ওই ঘটনাটি একটি ‘অমার্জনীয় অবহেলার ভয়াবহ ঘটনা।’

পত্রিকাটি আরও জানায়, বিমানটি সিয়াটলে ফেরার পর টিস্যু সংরক্ষণের জন্য হৃদপিণ্ডটি সেখানকার একটি দাতা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। তারা বলছে, এটা নির্ধারিত সময়ের মধ্যেই নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়েছিল