২০২২ সালে খানজাহান আলী বিমান বন্দর চালুর সম্ভাবনা

September 9, 2019 8:38 am
Print Friendly, PDF & Email

মংলা সড়কের পাশে বাগেরহাটের খানজাহান আলী বিমান বন্দর নির্মাণ প্রকল্পের কাজ ১৯৯৬ সালে হাতে নেয়া হলেও সে সময় তা আলোর মুখ দেখেনি। নানা জটিলতায় আটকে থাকার পরে অবশেষে আলোর মুখ দেখতে পেল এটি।

২০১৫ সালে খানজাহান আলী বিমান বন্দর প্রকল্প অনুমোদিত হয়েছে। এরপরে ২ দফায় ৬৩৩ একর জমি অধিগ্রহণ করেছে জেলা প্রশাসন। সীমানা প্রাচীর নির্মাণের কাজ শুরু হয়েছে মে মাসে। দেরিতে হলেও বিমান বন্দরের কাজ শুরু হওয়ায় খুশি স্থানীয়রা।

তারা বলেন, জনগণের উন্নয়নের জন্য এ কাজ অতি দ্রুত হোক এটি আমরা চাই। এতে দক্ষিণ -পশ্চিমাঞ্চলের অর্থনীতিও সমৃদ্ধ হবে এবং বিনিয়োগ বাড়বে। বিমান বন্দরটি চালু হলে বেকারত্ব দূর হবে এবং এলাকার বেকারদের কর্মসংস্থানের সুযোগও সৃষ্টির হবে।

বাগেরহাট চেম্বার অফ কর্মাস এ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ সভাপতি লিয়াকত হোসেন বলেন, এ বন্দর নির্মাণ হলে অবকাঠাম্যের পাশাপাশি ব্যবসা বাণিজ্যের উন্নতি হবে। আমাদের সুদূরপ্রসারি চিন্তাভাবনা বাস্তবায়িত হবে। আগামী এক বছরের মধ্যে সীমানা প্রাচীর নির্মানের কাজ শেষ হবে বলে জানিয়েছেন ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটক মন্ত্রণালয়ের সচিব মো.মহিবুল হক বলেন, ২০২০ সালের মধ্যে বিমার বন্দরের মূল প্রকল্পের নির্মাণ কাজ শুরু হবে। এবং ২০২২ সালে বিমান উঠানামা করবে বলে আশা করছি। শুক্রবার বাগেরহাট সফরের সময় সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।