দুবাই এয়ার শো’তে উড়বে বৈদ্যুতিক রেইসিং বিমান

November 19, 2019 10:50 am
Print Friendly, PDF & Email

এশিয়ানমেইল ডেস্ক

রোববার এয়ারবাস আয়োজিত এয়ার রেইসিং টুর্নামেন্টে উন্মোচন করা হয়েছে বিশ্বের প্রথম বৈদ্যুতিক রেইসিং বিমান।

পরিবেশবান্ধব অ্যারোস্পেস প্রযুক্তির উন্নয়নের গতি বাড়াতেই এই টুর্নামেন্টের আয়োজন করেছে প্লেন নির্মাতা ইউরোপিয়ান প্রতিষ্ঠানটি– খবর রয়টার্সের।

কেবল এয়ারবাস নয়, বৈদ্যুতিক উডুক্কুযান বানানোর জন্য কাজ করছে বোয়িং, উবারসহ বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান। আকাশ পথে যাত্রায় জীবাশ্ম জ্বালানির ক্ষতিকর প্রভাব কমাতেই নতুন প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করছে প্রতিষ্ঠানগুলো।

শহুরে পরিবেশে যাত্রী বহন করতে পারবে এমন কনসেপ্ট বৈদ্যুতিক উডুক্কুযান বানাতে আগের মাসেই ফোক্সভাগেনের স্পোর্টস গাড়ির ব্র্যান্ড পোর্শের সঙ্গে অংশীদারিত্ব করেছে এয়ারবাসের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রতিষ্ঠান বোয়িং।

এয়ারবাস আয়োজিত এই রেইসিং টুর্নামেন্টের নাম বলা হয়েছে এয়ার রেইস ই। টুর্নামেন্টে আয়োজকদের পক্ষ থেকে বলা হয়, দুবাই এয়ার শো-তে উন্মোচন করা হয়েছে হোয়াইট লাইটনিং নামের বৈদ্যুতিক রেইসিং উডুক্কুযানটি। প্লেনটি বানিয়েছে যুক্তরাজ্যের কনডর এভিয়েশন।

উডুক্কুযানটিতে ব্যবহার করা হয়েছে বৈদ্যুতিক মোটর, যা একে ঘণ্টায় ৪৮২ কিলোমিটার বেগে উড়তে সহায়তা করবে। প্রতিযোগিতায় ভূমি থেকে ১০ মিটার উচ্চতায় পাঁচ কিলোমিটারের সংকীর্ণ সার্কিটে উড়বে উডুক্কুযানটি।

এয়ার রেইস ই প্রধান নির্বাহী জেফ জাটম্যান বলেন, “রেইসিং সিরিজটি উদ্ভাবনের পরীক্ষামূলক ভিত্তি হিসেবে কাজ করবে এবং আকাশপথে বৈদ্যুতিক যানের বাণিজ্যিক ব্যবহার বাড়াবে।”

নতুন এই উডুক্কুযানটির নির্মাতা প্রতিষ্ঠানের দাবি, এতে যে লিথিয়ামআয়ন ব্যাটারি ব্যবহার করা হচ্ছে তা যানটিকে প্রতিযোগিতায় পাঁচ মিনিট ওড়াতে সক্ষম। আর সাধারণ যাত্রায় কম শক্তি খরচ করে এটি উড়তে পারবে ১০ মিনিট।

বিশ্বের প্রথম পুরো বৈদ্যুতিক উডুক্কুযানের রেইসিং সিরিজ চালুর লক্ষ্যে কাজ করছে এয়ার রেইস ই। ২০২০ সালেই প্রথম প্রতিযোগিতা শুরুর প্রত্যাশা করছে তারা। সামনের সপ্তাহেই প্রথম রেইসের জন্য আট দলের নাম ঘোষণা করার কথা রয়েছে।