সাংবাদিক রফিক মজুমদারকে প্রাণনাশের হুমকির ঘটনায় ডিআরইউ ও ক্র্যাবের উদ্বেগ

November 23, 2019 10:51 pm
Print Friendly, PDF & Email

নিজস্ব প্রতিবেদক

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি’র (ডিআরইউ) ও বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশন (ক্র্যাব) সদস্য এবং জাগোনিউজ ২৪ ডটকমের সিনিয়র রিপোর্টার রফিক মজুমদারকে সংবাদ প্রকাশের জের ধরে হুমকি দেয়ার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ডিআরইউ ও ক্র্যাব।

ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি কার্যনির্বাহী কমিটির পক্ষ থেকে সভাপতি ইলিয়াস হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক কবির আহমেদ খান আজ শনিবার এক বিবৃতিতে রফিক মজুমদারকে হুমকির ঘটনায় উদ্বেগ ও নিন্দা জানান।

বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার্স এসোসিয়েশনের (ক্র্যাব) সাবেক প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক, অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগো নিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমের সিনিয়র রিপোর্টার রফিক মজুমদারকে প্রাণনাশের হুমকির ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে ক্র্যাব কার্যনির্বাহী কমিটি।

ক্র্যাব সভাপতি আবুল খায়ের ও সাধারণ সম্পাদক দীপু সারোয়ার এক বিবৃতিতে এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা, ক্ষোভ ও উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। তারা বলেন, একজন পেশাদার সাংবাদিককে হত্যার হুমকি ও হয়রানির মত প্রকাশ পরিপন্থী। এতে বাক স্বাধীনতা রুদ্ধ হয়। এ ঘটনায় আমরা উদ্বিগ্ন।
বিবৃতিতে ক্র্যাব নের্তৃবৃন্দ বলেন, সাংবাদিকতার নীতিমালা মেনেই প্রতিবেদন লিখেছেন রফিক মজুমদার। সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের বক্তব্য আছে তার প্রতিবেদনে। তারপরও তাকে হত্যার হুমকি দেয়া অত্যন্ত নিন্দনীয়। সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দায়ীদের চিহ্নিত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহŸান জানান ক্র্যাব নেতৃবৃন্দ।
এ ধরনের হুমকি মুক্ত স্বাধীন গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠার পরিপন্থি। হুমকিদাতাদের বিরুদ্ধে কার্যকরি পদক্ষেপ গ্রহণে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য, গত ১৮ নভেম্বর, ২০১৯ তারিখে ‘ককপিটে নিয়ে কেবিন ক্রুদের কুপ্রস্তাব দেন পাইলট ইশরাত’ শিরোনামে প্রকাশিত হয় জাগোনিউজ ২৪ ডটকমে। পরবর্তীতে সংবাদটি ব্যাপক আলোচিত হয় এবং দেশের শীর্ষস্থানীয় সকল জাতীয় পত্রিকায় গুরুত্বসহকারে প্রকাশিত হয়। সংবাদটি প্রকাশের পর থেকে অভিযুক্ত পাইলট ইশরাতের লোকজন তাকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়ে আসছে। সর্বশেষ গতকাল শুক্রবার রাত আনুমানিক ১০টায় বাড্ডা লিংক রোড এলাকার প্রাণ-আরএফএল ভবনের পাশের গলিতে তার চালিত মোটর সাইকেল গতিরোধ করে চারজন যুবক। তারা ক্যাপ্টেন ইশরাতের লোক বলে পরিচয় দেয় এবং তার বিরুদ্ধে কেন নিউজ হয়েছে জানতে চায় এবং আর কোনো নিউজ করলে প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেয়।