করোনায় কাতারগামী সব ফ্লাইট বন্ধ

March 16, 2020 12:10 pm
Print Friendly, PDF & Email

এশিয়ানমেইল ডেস্ক

করোনা সংক্রমণ মোকাবিলায় একগুচ্ছ পদক্ষেপ নিয়েছে কাতার। বিদেশ থেকে আসা সবধরনের ফ্লাইট স্থগিত করেছে তারা। পাশাপাশি, করোনা সংকটে ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীদের সহযোগিতায় ২৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার প্রণোদনা দিচ্ছে কাতার সরকার। রোববার দেশটির আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক সর্বোচ্চ কমিটির এক বৈঠকে এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

বৈঠক শেষে কমিটির পক্ষ থেকে এক বিবৃতিতে জানানো হয়, করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে আগামী বুধবার (১৮ মার্চ) রাত থেকে অন্তত ১৪ দিন দোহামুখী সব ফ্লাইট বন্ধ থাকবে। প্রয়োজেনে এ সময়সীমা আরও বাড়ানো হতে পারে। তবে, কার্গো ও ট্রানজিট ফ্লাইটগুলো এ নিষেধাজ্ঞার আওতায় পড়বে না। কাতারি নাগরিকরা অন্তত দুই সপ্তাহ কোয়ারেন্টাইন শেষে দেশে ঢুকতে পারবেন।

কাতারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি জানায়, বাস ও মেট্রোসহ সব ধরনের গণপরিবহন রোববার রাত থেকে বন্ধ থাকবে। শারীরিক সংস্পর্শ কমাতে অন্তঃসত্ত্বা, ৫৫ বছর বয়সোর্ধ্ব, ডায়াবেটিস বা হৃদরোগসহ বিভিন্ন ধরনের রোগাক্রান্তরা চাইলে বাসা থেকেই কাজ করতে পারবেন।

করোনা সংকটে ক্ষতিগ্রস্ত সরকারি-বেসরকারি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানগুলোর সহযোগিতায় ৭৫ বিলিয়ন কাতারি রিয়াল (২৩ বিলিয়ন ডলার) প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছে দেশটির সরকার।

এর আগে, চলতি সপ্তাহের শুরুতেই কাতারের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি নিষিদ্ধ করা হয়। বাসায় থেকেই তাদের বিকল্প উপায়ে পাঠদানের ব্যবস্থা করার নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তবে হাইস্কুলের চূড়ান্ত বর্ষের শিক্ষার্থীদের পরীক্ষায় অংশ নিতে হবে।

 

রোববার এক টুইটে কাতারের বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, দেশটির সব রেস্টুরেন্ট ও ক্যাফেতে খাদ্যগ্রহণ নিষিদ্ধ করা হয়েছে। সেখান থেকে শুধু খাবার অর্ডার করা ও ডেলিভারি নেয়া যাবে।

করোনা সংকট কাটাতে অন্তত ছয়মাস বেসরকারি খাতে ঋণগ্রহিতাদের কিস্তি স্থগিত করতে ব্যাংকগুলোকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। খাদ্য ও ওষুধ আমদানিতে ছয় মাস সব ধরনের শুল্ককর মওকুফ করা হয়েছে। এসময়কালে বিদ্যুৎ ও পানির বিলেও কর দেয়া লাগবে না।

এর আগে, করোনা প্রতিরোধে বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, চীন, মিশর, ইরাক, ইরান, ইতালি, দক্ষিণ কোরিয়াসহ অন্তত ১৮টি দেশের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা দেয় কাতার।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, রোববার কাতারে নতুন করে ৬৪ জন কোভিড-১৯ রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এ নিয়ে সেখানে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৪০১ জন। দেশটিতে এ পর্যন্ত ৭ হাজার ৯৫০ জনের শরীরে করোনা টেস্ট করা হয়েছে।

গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের উহান থেকে শুরু হয়ে এ পর্যন্ত বিশ্বের অন্তত ১৫৭টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে নভেল করোনাভাইরাস। বিশ্বজুড়ে এতে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৬৯ হাজার ৫৫২ জন, প্রাণ হারিয়েছেন সাড়ে ছয় হাজারেরও বেশি মানুষ। আর চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন অন্তত ৭৭ হাজার ৭৫৩ জন।