সিঙ্গাইরে দলীয় কোন্দলের জেরে ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা

March 2, 2021 4:31 pm
Print Friendly, PDF & Email

মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইরে দলীয় কোন্দলের জের ধরে উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন ওরফে মিরুকে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। গতকাল সোমবার রাতে সিঙ্গাইর পুরোনো বাসস্ট্যান্ড এলাকায় তাঁকে কুপিয়ে জখম করা হয়। আজ মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকার জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানে (পঙ্গু হাসপাতাল) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তাঁর মৃত্যু হয়।

এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহিদুর রহমান বলেন, অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জের ধরে ফারুক হোসেনকে হত্যা করা হয়েছে। এর সঙ্গে সিঙ্গাইর সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি মোল্লা মোহাম্মদ দুলাল ও তাঁর বড় ভাই উপজেলা পরিবহন শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক জালাল উদ্দিন ওরফে আঙ্গুর ফারুক জড়িত। এ ব্যাপারে থানায় হত্যা মামলা করা হবে।

স্থানীয় ও দলীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রায় এক মাস আগে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে মোল্লা মোহাম্মদ দুলাল ও তাঁর সহযোগীরা ফারুক হোসেনকে মারধর করেন। এ নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে বিরোধ চলছিল। গতকাল রাতে উপজেলার জয়মণ্ডপ এলাকা একটি গানের অনুষ্ঠান থেকে মোটরসাইকেলে করে উপজেলা সদরে বাড়িতে ফিরছিলেন ছাত্রলীগ নেতা ফারুক হোসেন। দিবাগত রাত একটার দিকে সিঙ্গাইর পুরোনো বাসস্ট্যান্ড এলাকায় পৌঁছালে প্রতিপক্ষের দুলাল ও তাঁর ভাই জালাল মোটরসাইকেলের গতিরোধ করেন। এরপর তাঁরা ফারুককে ধারালো অস্ত্র (চাইনিজ কুড়াল) দিয়ে কুপিয়ে জখম করেন।

পরে গুরুতর আহত অবস্থায় ফারুককে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। উন্নত চিকিৎসার জন্য রাতেই তাঁকে ঢাকার পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে আজ বেলা একটার দিকে তিনি মারা যান।

এ বিষয়ে জানতে আজ দুপুরে মোল্লা মোহাম্মদ দুলালের মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে বন্ধ পাওয়া যায়।

সিঙ্গাইর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রকিবুজ্জামানের মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করলেও তিনি ফোন ধরেননি। পুলিশ সুপার রিফাত রহমান বলেন, এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যারা জড়িত, তাদের ধরতে অভিযান চালানো হচ্ছে।