ভারতের খাদ্য ও ওষুধ সহায়তা পৌঁছাল শ্রীলঙ্কায়

June 25, 2022 11:52 pm
Print Friendly, PDF & Email

প্রতিবেশী ভারতের পাঠানো চাল ও ওষুধের একটি চালান গতকাল শুক্রবার গ্রহণ করেছে শ্রীলঙ্কা। দ্বীপরাষ্ট্রটির জনগণ নজিরবিহীন অর্থনৈতিক সংকট মোকাবিলা করছে। সুপারমার্কেট আর ফার্মেসির তাকগুলো এখন ফাঁকা। খবর এএফপির

বৈদেশিক মুদ্রার মারাত্মক সংকটের কারণে খাদ্য, জ্বালানি ও ওষুধের আমদানি ব্যয় পরিশোধ করতে পারছে না শ্রীলঙ্কা। গত বছর থেকে এ চাহিদা পূরণ করতে পারছে না দেশটি। এতে দেশজুড়ে দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে।

দ্বীপরাষ্ট্রটির ২ কোটি ২০ লাখ মানুষ দিনের দীর্ঘ সময় বিদ্যুৎ–বিচ্ছিন্ন থাকতে বাধ্য হচ্ছেন। মুদ্রাস্ফীতির ক্রমবর্ধমান উল্লম্ফনের ফলে পারিবারিক ব্যয় নিয়ে চাপে পড়েছেন তাঁরা।

খাদ্য ও জ্বালানি চাহিদার একটি অংশ পূরণে শ্রীলঙ্কাকে ১৫০ কোটি ডলার ঋণ দিয়েছে ভারত। সহায়তা নিয়ে আলোচনার জন্য ভারতীয় বিশেষজ্ঞ দলের সফরের পর শুক্রবার খাদ্য ও ওষুধের এই চালান পৌঁছায়।

বৈঠকের পর শ্রীলঙ্কার প্রেসিডেন্ট গোতাবায়া রাজাপক্ষের কার্যালয় বলেছে, ‘শ্রীলঙ্কার অর্থনীতি স্থিতিশীল ও পুনরুদ্ধারে ভারতের সহায়তা কর্মসূচির ভবিষ্যৎ কার্যক্রমের ধরন নিয়ে উভয় পক্ষ দীর্ঘ আলোচনা করেছে।’

পেট্রলের মারাত্মক সংকট চলতি সপ্তাহে শ্রীলঙ্কাকে স্থবির করে দেয়। জ্বালানি বাঁচাতে পার্লামেন্টের অধিবেশন বাতিল করা হয়েছে।

একটি জরিপে দেখা যায়, অর্থনৈতিক সংকটের সঙ্গে মানিয়ে নিতে শ্রীলঙ্কায় প্রতি পাঁচজনের চারজন খাবার খাওয়া কমিয়ে দিচ্ছেন। এরপর গত সপ্তাহে দেশটির জন্য জরুরি খাদ্যসহায়তার আবেদন জানায় জাতিসংঘ।

চলমান সংকট পর্যালোচনায় আগামী সপ্তাহে কলম্বো পৌঁছাতে পারে যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ মন্ত্রণালয়ের একটি প্রতিনিধিদল। গত বুধবার প্রধানমন্ত্রী রনিল বিক্রমাসিংহে আইনপ্রণেতাদের বলেছেন, দেশের অর্থনীতি ‘সম্পূর্ণভাবে ধসে পড়ার’ পর্যায়ে পৌঁছে গেছে।

শ্রীলঙ্কা ইতিমধ্যে ৫ হাজার ১০০ কোটি ডলার বিদেশি ঋণ পরিশোধে খেলাপি হয়েছে। অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধার প্যাকেজের জন্য আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) সঙ্গে দেনদরবার চালিয়ে যাচ্ছে দেশটি। তবে এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন হতে কয়েক মাস লেগে যেতে পারে।